Website-Loading-Speed-Impro

( website-loading-speed-optimization ) ওয়েবসাইটের লোডিং স্পিড সমস্যার অসাধারণ সমাধান।

প্রথমে ধন্যবাদ জানাই উজ্জ্বল আহমেদ ওয়েব সাইটের পক্ষে থেকে। আজ আপনাদের মাঝে চমৎকার একটি টিপস এন্ড ট্রিক্স নিয়ে হাজির হলাম। আপনাদের মধ্যে যারা ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েব সাইট ব্যবহার করেন। তাদের জন্য আজকের এই পোস্টটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি টিপস। একটি ওয়েবসাইট সার্ভারে সেটাপ দিলেই কাজ শেষ হয়ে না! এর পিছনে অনেকগুলো টেকনিক্যাল কাজ থাকে। সঠিক ভাবে SEO করা, ওয়েবসাইটের লোডিং স্পিড বাড়ানো। আজ যে বিষয়টি নিয়ে কথা বলব। সেটি হলো – সম্পূর্ণ ফ্রিতে কিভাবে একটি ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইটের লোডিং স্পিড বাড়ানো যায়? এই প্রসঙ্গে। কারণ একটা ওয়েব সাইট SEO রেঙ্কিং এর গুরুত্বপূর্ণ প্রভাব রাখে। তাছাড়া Slow Website -কে গুগল পেনাল্টিও মারতে পারে! ভিজিটররা যখন আপনার ওয়েবসাইটে কোন একটা ইনফরমেশন জানার জন্য ভিজিট করবে তখন আপনার সাইট লোড নিতে অনেক সময় নিবে। আর লোড নিলে ইউজারা বিরক্ত হবে তখন আপনার সাইট থেকে তারা বেড়িয়ে যাবে। একবার ইউজার বেড়িয়ে গেলে আবার নাও আসতে আসতে পারে। আর তাতে করে আপনার কাঙ্খিত ভিজিটর বা ট্রাফিক হারাবেন! সবসময় আপনার ওয়েবসাইট তিন সেকেন্ট এর কম সময়ের ভিতরে রাখতে হবে। তাই যে ওয়েবসাইট যত বেশি ফাস্ট সেই ওয়েবসাইট গুগলের প্রথম পেইজে চলে আসার সম্ভাবনা থাকে এবং ইউজার এক্সপেরিয়েন্স ভাল থাকে। আমি আপনি বা কোন ইউজার Slow Website পছন্দ করব না।

একটা ওয়েবসাইট Slow হওয়ার অনেকগুলো কারণ রয়েছে তার মধ্যে প্রধানতম কারণ হলো – সঠিক থিম নির্বাচন করা। একটি ওয়েবসাইট আপনি বার বার তৈরী করবেন না। যেহেতু একবারের জন্য তৈরী করবেন তাই আমার হাইলি রিকুমেন্ট আপনার একটি পেইড থিম ব্যবহার করতে পারেন। এতে করে আপনার সাইটের জন্য অনেক মঙ্গল। আর আপনার হোস্টিং সার্ভার নির্বাচন করা। আপনাকে ওয়েবসাইট তৈরী করার পূর্বে সিন্ধান্ত নিতে হবে কোন কোম্পানির হোস্টিং সার্ভার কিনছেন। কার কাছ থেকে কিনছেন! ভালো হোস্টিং, একটা ওয়েবসাইটের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। যদি বাংলাদেশের বাইরে থেকে কোন হোস্টিং কিনতে চান তাহলে সবচেয়ে ভাল কয়েকটি কোম্পানি হল –

namecheap
GoDaddy
HostGator
bluehost

এই সবগুলো ডোমেইন হোস্টিং কোম্পানি বিশ্বব্যাপী নামকরা। আর বাংলাদেশী হোস্টিং কোম্পানি এখন ততটা খরাপ না। আপনি চাইলে বাংলাদেশের ভালো কোন প্রভাইডারের কাছ থেকে সার্ভিস কিনতে পারেন। তবে যে কোন হোস্টিং সার্ভিস ডিফেন্ড করে আমাদের প্রাইজিং এর উপর। প্রফেশনাল ভাবে বিজনেস শুরু করতে চাইলে প্রাইজ একটু বেশি দিয়ে হলে আপনাকে ভাল মানের হোস্টিং কিনতে হবে।

যাই হোক আমি এত বক বক না করে আমাদের আজকের মেইন টপিকে ফিরে যাই। আমরা চারটি স্টেপে আমাদের ওয়েব সাইটের স্পিড বাড়াব। website-loading-speed-optimization

১। প্রথমে আমাদের ওয়েবসাইট Cloudflare ফ্রি CDN সেটাপ করতে হবে আমাদের ওয়েব সাইটের সাথে।

২। Resmush.it নামের একটি প্লাগিন সেটাপ করতে হবে। ইমেজ অপটিমাইজ করার জন। কারণ একটা ওয়েব সাইটে যত বেশি ইমেজ থাকবে। সেই ওয়েবসাইটটি Slow থাকবে। তাই এই প্লাগিনটি সেটাপ করে নিলে সবগুলো ইমেজকে একসাথে Optimize করে নিবে এবং আমাদের ওয়েবসাইট লোডিং স্পিড ফাস্ট কাজ করবে।

৩। W3 total cache নামের আরেকটি প্লাগিন সেটাপ করব।

৪। Jetpack নামের আরেকটি জনপ্রিয় প্লাগিনটি সেটাপ করব। এই প্লাগিনটির কাজ ইমেজ অপটিমাইজ করা। আপনার সার্ভারে যতগুলো ইমেজ আছে সবগুলো ইমেজকে সে অন্য আরেকটি সার্ভার/ওয়েবসাইট থেকে লোড করবে। তার মানে আপনার সাইটে ইমেজ দেখাবে ভিজিটর ক্লিক করলে সাথে সাথে অন্য আরেকটি ওয়েবসাইট বা সার্ভার যাই বলেন না কেন সেটি থেকে লোড করবে। এতে করে অনেকগুণ লোডিং স্পিড আপনার সাইটে বেড়ে যাবে। খুব চমৎকার ও পপুলার একটি প্লাগিন।

প্রথমে বলে রাখি ওয়েবসাইট অপটিমাইজ শুরুকরার পূর্বে আপনাদের ওয়েবসাইটের বর্তমান পারফরমেন্স চেক করে নিবেন। এতে করে বুঝতে সুবিধা হবে। অপটিমাইজ করার পর ওয়েবসাইট কতটুকু ফাস্ট হলো। অনলাইনে ওয়েবসাইটের স্পিড টেস্ট করার জন্য বিভিন্ন ফ্রি টুলস এবং পেইড টুলস রয়েছে। এর মধ্যে আমার সবচেয়ে ভাললাগা এবং জনপ্রিয় কিছু ফ্রি টুলসের নাম নিচে দিয়ে দিচ্ছি আপনাদের সুবিধার্থে। তাতে বুঝতে পারবেন আপনার ওয়েবসাইট কতটুকু ফাস্ট লোড নিচ্ছে এবং কোথাও কোন সমস্যা থাকলে তা ধরিয়ে দিবে সমাধান করার জন্য।

Google PageSpeed Insights
Pingdom
GTmetrix
WebPageTest
DareBoost

একটি সাইটের স্পিড টেস্ট করার জন্য উপরের দু-চারটি টুলসের নাম জানলে যথেস্ট। আমি ধরে নিচ্ছি আপনারা আপনাদের ওয়েবসাইট ইতিমধ্যে বর্তমান স্পিড টেস্ট করে নিয়েছেন।
এখন আমরা পূর্বের ইনস্টল করা প্লাগিন গুলো আমাদের সার্ভারে সঠিক ভাবে তার ভিতরের প্রোগ্রাম সেটআপ করব।

১। প্রথমে Cloudflare একটি API key লাগবে। এর জন্য আমাদের যেতে হবে Cloudflare এর অফিসিয়াল সাইটে সেখানে গিয়ে Sign Up ক্লিক করে আপনার নাম ইমেইল আইডি দিয়ে আপনি একটি ফ্রি একাউন্ট তৈরী করে নিতে পারবেন। আর কিভাবে ফ্রিতে API key সংগ্রহ করবেন তার জন্য এই ভিডিওটি দেখতে পারেন। ভিডিওটি দেখে শিখার পর যে API key সংগ্রহ করেছেন। সেটি কোথাও সেইভ করে রাখবেন। পরবর্তীতে কাজে লাগবে।

২। দ্বিতীয় নাম্বারে সার্ভারে Resmush.it নামের যে প্লাগিনটি ইনস্টল করেছেন সেটি কনফিগার করা। তার জন্য Dashboard থাকা অবস্তায় Media > থেকে Resmush.it ক্লিক করতে হবে। এবং ডানদিকের সেটিং অপশনে ৮৫/৯০ নাম্বারের সংখ্যা লিখে একটি ভেলু দিবেন। মনে রাখবেন যতকম ভেলু দিবেন ইমেজের সাইজ তত কমবে। আবার ৮৫ কম হলে ইমেইজের কোয়ালিটি নষ্ট হয়ে যেত পারে তাই আপনাকে ৮৫/৯০ কাছাকাছি রাখতে হবে এবং নিচে তিনটি চেকমার্ক অপশন দেখতে পাচ্ছেন তার মধ্যে উপরের দুটি অংশ চেকমার্ক করে রাখবেন। যাতে করে পরবর্তীতে কোন ইমেজ ওয়েবসাইটে আপলোড করলে অটোমেটিক ভাবে ইমেজ অপটিমাইজ করে নিতে পারে। তারপর Save Change ক্লিক করতে হবে। সর্বশেষে ডানদিকে লক্ষ্য রাখলে দেখতে পাবেন – লিখা আছে Optimize all picture এটাতে ক্লিক করতে হবে এবং সাথে সাথে সার্ভারে থাকা সকল ইমেজগুলো Automatic Optimize হতে থাকবে। যদি ওয়েভ সার্ভারে ইমেজ বেশি থাকে এর জন্য একটু সময় নিতে পারে। এইজন্য কিছুক্ষণ আপনাকে দৈর্য্য ধরে অপেক্ষা করতে হবে।

৩। তৃতীয় নাম্বারে W3 total cache এই প্লাগিনটি নিশ্চই ইনস্টল করে রেখেছেন। কিভাবে এর ভিতরের ফাংশন সেটাপ করবেন, নিচের ভিডিওটি দেখলে পরিস্কার বুঝে যাবেন।

৪। এখন আপনাদের চতুর্থ নাম্বারে যে কাজটি করতে হবে। Jetpack ইনস্টল করা। যদি পূর্বে ইনস্টল করা থাকে তাহলে আপনাকে যেতে হবে Set up Jetpack এবং এখানে ক্লিক করতে হবে এবং সাথে সাথে আপনাকে দেখাবে wordpress.com নামের সাইটে একাউন্ট তৈরী করতে হবে। তাই আপনারা wordpress.com সাইটে একটি ফ্রি একাউন্ট তৈরী করে নিবেন। তাতে আপনার Jetpack প্লাগিনটি Approve হয়ে যাবে এবং সামনে যা আসবে সবগুলো অপশনকে Skip করে যেতে হবে। তারপর দেখবে সামনে তিনটি প্লান দেখাচ্ছে Jetpack প্লাগিন কিনার জন্য। আপনারা কোনকিছুতে ক্লিক না করে প্লানের নিচে গিয়ে দেখতে পাবেন – Start with free এই অপশনটি সিলেক্ট করে নিতে হবে এবং continue তে ক্লিক করতে হবে। এখন বর্তমানে এ সাইটের কাজ শেষ। এখন আবার যেতে হবে আপনার ওয়েবসাইটের ডেসবোর্ডে এবং দেখতে পাবেন Jetpack নামের একটি মেনু যুক্ত হয়েছে সেটাতে ক্লিক করতে হবে এবং সঠিক ভাবে প্রত্যেকটি অপশন কনফিগার করে নিতে হবে।
Jetpack এর ব্যবহারটি আরো ভালো ভাবে বুঝতে নিচের এই ভিডিওটি দেখতে পারেন।

তাছাড়া আরো কিছু জনপ্রিয় প্লাগিন রয়েছে যেগুলো ওয়েবসাইটের স্পিড বাড়ানো যায়। সেগুলো হচ্ছে –

WP Super Cache
WP Faster Cache
Autoptimize
Smush Image Compression and optimization
WP Rocket
Resizeimage
Kraken
ImageOptim

এই প্লাগিনগুলো দিয়ে ওয়েবসাইট বিভিন্ন উপায়ে লোডিং স্পিড বাড়ানো যায়। website-loading-speed আপনারা নিজেরাই একটু ট্রাই করে দেখে নিবেন। আর কোথাও কোন সমস্যা হলে ইউটিউবে প্লাগিনের নাম লিখে সার্চ দিয়ে তার ফাংশনালিটি সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারবেন।

প্রয়োজনের চেয়ে অতিরিক্ত প্লাগিন ওয়েবসাইটে ব্যবহার করবেন না। তবে মনে রাখবেন যেকোনো প্লাগিন ইনস্টল করার পূর্বে আপনার ওয়েবসাইটের একটি ব্যাকআপ ফাইল ডাউনলোড করে রাখবেন। তাতে করে হঠাৎ সাইটের কোথাও কোন সমস্যা হলে পূর্বের ব্যাকআপ ফাইল থেকে আপনার সাইটটি আবার ফিরে পাবেন। এখন আমরা আমাদের মূল টপিকের একেবারে শেষের দিকে ফিরে যাই।

যদি এই চারটি প্লাগিন আপনি সঠিক ভাবে আপনার ওয়েবসাইটে সেটআপ করেন তাহলে পূর্বের অপটিমাইজেশন টেস্ট এর সাথে মিলিয়ে দেখতে পারেন। আপনরা নিজেরাই এর ডিফারেন্স কতটুকু বুঝতে পারবেন। এই ছিল আজকের মত ওয়েবসাইট স্পিড অপটিমাইজেশন এর উপর টিপস এন্ড ট্রিক্স। পোস্টটি পড়ে কেমন লাগল নিচের কমেন্ট বক্সে কমেন্ট করে আপনার মহামূল্যবান মতামত জানাবেন। আর আপনার এই আরর্টিকেলটি উপকারে আসলে আপনার সোসাল মিডিয়াতে শেয়ার করবেন। যাতে করে অন্যেরাও পড়ে উপকারে আসতে পারে। আবারো ধন্যবাদ সবাইকে।

My Facebook ID : https://www.facebook.com/uzzalahmed193

The most effective method to Keep a Steady freelancing Income Guide : https://uzzalahmed.com/the-most-effective-method-to-keep-a-steady-freelancing-income-guide/

Tags : website-loading-speedoptimization, website load test, website speed optimization, mobile website speed test, website speed optimization google, website load test, how to optimize website speed in wordpress, How To Make Your WordPress Website Run Faster, How to Make Your Website Load Faster, Why Websites Load SLOWLY, How To Test & Improve Website Load Speed

Hits: 31

Leave A Comment

All fields marked with an asterisk (*) are required

4 × one =

Shares